ঢাকা শুক্রবার, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮, ৩০ জুলাই, ২০২১
Mukto Sangbad Protidin

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে অনিয়ম: পরিদর্শনে মাঠে নামছে ৫ টিম


এমএস.প্রতিদিন ডেস্ক: শুক্রবার, ০৯ জুলাই, ২০২১, ০৮:৫১
প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে অনিয়ম: পরিদর্শনে মাঠে নামছে ৫ টিম
সংগৃহীত ছবি

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণে অনিয়ম-অসঙ্গতি ও অগ্রগতি পরিদর্শনে পাঁচটি টিম নামছে মাঠে। এসব টিম প্রকল্প পরিচালকের নেতৃত্বে দুইদিনে ঢাকা, রাজশাহী, সিলেট, রংপুর, ময়মনসিংহ বিভাগের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা সফর করবেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে জানা যায়, শুক্রবার (৯ জুলাই) সকালে টিমগুলো প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সারাদেশের বিভিন্ন স্পটের উদ্দেশে যাবে। তারা শনিবার রাতে ফিরে এসে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রধানমন্ত্রী বরাবর উপস্থাপন করবেন।
 
সূত্রটি আরো জানায়, অতিবৃষ্টিসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগে অনেক জায়গায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পাশপাশি কিছু জায়গায় নির্মাণেও অনিয়ম ধরা পড়েছে। এসব ঘর দ্রুতই মেরামতের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই মেরামত কাজ দেখতেই এই সফর। পাশপাশি এই প্রকল্পের কোনো সমস্যা থাকলেও মাঠ পর্যায়ে পরিদর্শনের মধ্যদিয়ে তুলে আনা হবে।

আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মাহবুব হোসেন এ বিষয়ে বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে অনেকগুলো কেস (ঘটনা) পেয়েছি। আমাদের কাছে প্রতিটি কেসই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ প্রতিটি বাড়ির সঙ্গে একেকটি পরিবারের স্বপ্ন জড়িত। এজন্যই এ রকম একটি মহামারি পরিস্থিতির মধ্যেও আমরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পরিদর্শনে নামছি।’

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‌‘এটি প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রকল্প। এর সঙ্গে আমাদের সবার আবেগ জড়িয়ে আছে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে অনিয়ম ও অবহেলার প্রমাণ পাওয়া গেলে শাস্তি পেতেই হবে। কাউকেই বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেয়া হবে না।’

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে সারাদেশে ভূমিহীন ও গৃহহীন ১ লাখ ২০ হাজার পরিবারকে বাড়ি করে দেয়া হয়। ঝড়-বৃষ্টির কারণে সম্প্রতি কিছু ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া ছাড়াও ঘর নির্মাণ নিয়েও বেশকিছু অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। আর এ কারণেই তদন্ত করে ইতোমধ্যে ব্যবস্থাও নিয়েছেন তারা। এরইমধ্যে পাঁচ কর্মকর্তাকে (উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ওএসডি করা হয়েছে। এছাড়া অভিযুক্ত কয়েকজনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাও হয়েছে।

মুক্তসংবাদ প্রতিদিন / কে. আলম

ঝিনাইদহে লকডাউন কার্যকরে মাঠে রয়েছে পুলিশ



মঙ্গলবার, ০৬ এপ্রিল, ২০২১, ১২:২৭
ঝিনাইদহে লকডাউন কার্যকরে মাঠে রয়েছে পুলিশ

সারাদেশের ন্যায় ঝিনাইদহে শুরু হয়েছে ১ সপ্তাহের লকডাউন। সকাল থেকেই বন্ধ রয়েছে স্থানীয় ও দুরপাল্লার সকল প্রকার গণপরিবহন। বন্ধ রাখা হয়েছে ঔষধ, খাদ্যের দোকান ব্যতিত সকল দোকান-পাট। 

সোমবার সকাল থেকে লকডাউন কার্যকরে মাঠে রয়েছে পুলিশ। 

জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ জেলা শহরের পোস্ট অফিস মোড়, আরাপপুর, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালসহ বিভিন্ন স্থানে পুলিশের চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। 

সরকারের ১৮ দফা নির্দেশনা কার্যকর ও সর্বস্তরের মানুষকে সচেতন করতে সকালে পুলিশের পক্ষ থেকে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়। 

পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল আবুল বাশার, ডিবি ওসি আনোয়ার হোসেন, সদর থানার ওসি মোঃ মিজানুর রহমানসহ জেলা পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। 

এ সময় লকডাউনে অযথা শহরে ঘোরাঘুরি না করতে ও জরুরী প্রয়োজনে বাইরে বের হওয়া মানুষকে স্বাস্থ্য বিধি মানতে নানা পরামর্শ দেন।

মুক্তসংবাদ প্রতিদিন / কে. আলম

মিয়ানমারে প্রতি রাতে নামছে চীনের রহস্যঘেরা ফ্লাইট


মুক্তসংবাদ প্রতিদিন:
মঙ্গলবার, ০২ মার্চ, ২০২১, ০৯:৪৫
মিয়ানমারে প্রতি রাতে নামছে চীনের রহস্যঘেরা ফ্লাইট

ফাইল ফটো: প্রতিকী ছবি

প্রতি রাতে চীন থেকে অজানা পণ্য ও কর্মী নিয়ে মায়ানমারে অবতরণ করছে অনিবন্ধিত প্লেন। এব্যপারে চীনা সরকার এবং মিয়ানমার এয়ারওয়েজ দাবি করেছে, বিমানগুলো সামুদ্রিক খাদ্যদ্রব্য বহন করছে।
 
এক্ষেত্রে ফ্লাইটের চলাচল সম্পর্কে অস্ট্রেলিয়ান স্ট্র্যাটেজিক পলিসি ইনস্টিটিউট (এএসপিআই) প্রকাশিত সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে।  

মিয়ানমারে সামরিক জান্তার ক্ষমতা গ্রহণের পর প্রতিকূল পরিস্থিতিতে বিমানগুলো কী বহন করছে তার জন্য দুটি সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করেছে। এর একটি হচ্ছে তারা চীনা সৈন্য এবং সাইবার বিশেষজ্ঞদের নিয়ে আসছে তথ্য এবং ইন্টারনেটে প্রবেশাধিকার নিয়ন্ত্রণে সাহায্য বাড়াতে এবং অন্যটি হচ্ছে মিয়ানমার সরকার অস্ত্রের চালান বাড়িয়ে যাচ্ছে।  

গবেষকরা উল্লেখ করছেন, প্রতি রাতে গড়ে ৫টি ফ্লাইট, ৩টি বিমান ইয়াঙ্গুন থেকে দক্ষিণ চীনের কুমিং ভ্রমণ করছে। ২টি বিমান মিয়ানমার এয়ার লাইনের রঙে আঁকা থাকলেও, অন্যটি অচিহ্নিত। এর সবগুলো বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে ইজারা নেওয়া হয় বলে উল্লেখ করা হয়।  

প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, তাদের ট্রান্সপন্ডার বন্ধ করার মত কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে ফ্লাইট লুকানোর চেষ্টা করা হলেও ইঞ্জিন থেকে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে পাঠানো তথ্য এবং ইয়াঙ্গুনের বিমানবন্দরের কর্মীরা এবং সামরিক অভ্যুত্থানের বিরোধিতাকারী মিয়ানমারের নাগরিক অবাধ্যতা আন্দোলনের সদস্যরা টুইটারে ছবিগুলোর পোস্ট থেকে জানা গেছে।

মিয়ানমারের অত্যাচারে নিপীড়নের শিকার হয়ে ২০১৭ সালে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিল। এরপর থেকে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মুসলিম সংখ্যালঘু বা রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ এবং অন্যান্য নৃশংসতাসহ নির্যাতনের অভিযোগ তুলেছে আন্তর্জাতিকভাবে। 

যদিও তারা বারবারই বিষয়গুলো অস্বীকার করে আসলেও মিয়ানমারের সামরিক শাসকে মোড়ক গনতান্ত্রিক সু-চির সরকার তাদের নির্যাতন পার্শ্ববর্তী কিছু দেশের সহযোগিতায় রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগসহ অমানবিক নৃশংস- নির্যাতনগুলো ঠান্ডা মাথায় চালিয়েছে।

সর্বশেষ, এবছরের ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী সু-চির সরকারকে উৎখাত করে এবং নবনির্বাচিত সংসদ অধিবেশনের কয়েক ঘণ্টা আগে এক বছরব্যাপী জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে। সূত্র: এএনআই

মুক্তসংবাদ প্রতিদিন / এম কে আলম
Share on Facebook