ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২ আষাঢ় ১৪২৮, ১৭ জুন, ২০২১
Mukto Sangbad Protidin

আঙ্গ এডা ডাঙ্গাবিল


এমএস.প্রতিদিন ডেস্ক: রবিবার, ৯ মে, ২০২১, ১১:০৮
আঙ্গ এডা ডাঙ্গাবিল
সংগৃহীত ছবি

আঙ্গ এডা ডাঙ্গাবিল
আশরাফুল মান্নান
-------------------------------
আঙ্গ বাড়ি ফুলকোচা গাঁও
মধ্যে ডাঙ্গাবিল
বিলের পানি ফকফকা খুব
করতাছে ঝিলমিল।
মেল্লা রহম মাছ দেহা যায়
মেল্লা ট্যাহা দাম
হেই ট্যাহাতে আঙ্গ জাগার
অয়না কোন কাম । 
বিল নিয়া অয় জগরা-ক্যাসাল
মাথাত পরে বাশ
বিপক্ষরে শিক্ষা দিতে
মাইরা ভাসায় লাশ।
হামলা চলে মামলা চলে
আপনারাও অয় পর
অন্যবাড়িত মাছ চইল্যা যায়
সামাল দিতে ঘর। 
আঙ্গ মধে নাইক্যা পেলেন
নাইক্যা মতের মিল
আঙ্গ বিলের মাছ ধইরা খায়
ভিন্ গেরামের চিল। 
এমন এডা বিল যদি পাই
আঙ্গ ঠ্যাহা  কী
পল্লীনগর গড়তে পারুম--
নাগব না এম.পি । 
 

মুক্তসংবাদ প্রতিদিন / কে. আলম

সবুজ বাতিটা হঠাৎ ই একদিন


নিউজ ডেস্ক:
শুক্রবার, ০২ এপ্রিল, ২০২১, ১১:৫১
সবুজ বাতিটা 

মুক্তা দাশ

হঠাৎ ই একদিন  দেখবে  মেসেন্জারের সবুজ বাতি আর জ্বলছে না... একদিন, দুইদিন, তিনদিন, অনেক দিন...! 
হোয়াটসঅ্যাপে ও নেই কোন শুভ সকালের শুভেচ্ছা বার্তা ...! 
ভাইবারটাও বেকার পড়ে আছে...!! 
কপালের দু-তিনটে ভাঁজে একটা প্রশ্নবোধক 
এঁকে দিবে মনের উৎকন্ঠা ! উসকোখুসকো চুলে। 
আনফ্রেন্ড মুছে লক প্রোফাইলে বাড়বে উঁকিঝুঁকি! 
অতঃপর হয়তো একটা দীর্ঘশ্বাস মিলিয়ে যাবে... 
অসীম সীমানা পেরিয়ে নক্ষত্রালোকে !! 
আদৌও এসব কিছু হবে কি না ভবিষ্যতে কে জানে!? 
সবটা নিছকই আমার কল্পনা।
আসলে এসব কিছুই হবে না। 
হবে না মনের ভেতর একটা উথাল-পাথাল ঝড় 
তছনছ হবে না প্রতিটি রক্তকণিকা! 
যেমনটা এখন আমার হয়!  
তোমার একটু অবহেলায়.... 
মেসেন্জারের কালো গোল ভরাট না হলে কিংবা মেসেজ দেখতে দেরী হলে...! 
কালবোশেখী তছনছ করে!! মৃত্যু পরোয়ানা 
জারি করে মুহূর্তে মুহুর্তে । 
এমনটা শুধু আমার একার ই হয়...!!! 
তোমার এতো সময় কই আমায় নিয়ে মাথা ঘামানোর ? 
তুমি এখন অন্য কোন সুদূরিকা য় নিমগ্ন প্রেমিক।
সবুজ বাতিটা একদিন সত্যি ই নিভে যাবে 
আলোর দ্যুতি ছড়াবে না আর কোনদিন, 
সকালের সূর্য উঁকি দেবে না আর 
মিশে যাবে সব.. সব! 
সাড়ে তিন হাত মাটির গভীর অন্ধকারে।।

মুক্তসংবাদ প্রতিদিন / কে. আলম

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, কাজ করছে সেনাবাহিনী-বিজিবি


এমএস.প্রতিদিন ডেস্ক:
সোমবার, ২২ মার্চ, ২০২১, ১০:১৪
রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আগুন, কাজ করছে সেনাবাহিনী-বিজিবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন জ্বলছে

কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে পুড়ে গেছে ৩ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অধিকাংশ ঘরবাড়ি। এখনো আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সেনাবাহিনী, বিজিবি ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা একযোগে কাজ করছেন।

এ দিকে প্রাণে বাঁচতে হাজার হাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়ক ও বালুখালী কাস্টমস এলাকায়। সোমবার দুপুর ২টার দিকে উখিয়ার বালুখালি ক্যাম্প- ৮-ই, ডব্লিউ থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় রোহিঙ্গারা জানায়। 

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের উখিয়া স্টেশন, রামু স্টেশন ও কক্সবাজার স্টেশন এবং সেনাবাহিনীর  ফায়ার ইউনিটসহ ৫ ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। 

সন্ধ্যায় পুরো ক্যাম্প এলাকা কালো ধোয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে। প্রাণ বাঁচাতে রোহিঙ্গা শিশু-নারী-পুরুষ নিরাপদ আশ্রয়ে ছোটাছুটি করছে। অনেকে নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য অন্য ক্যাম্পে আশ্রয় নিচ্ছে। এখনো হতাহত, ক্ষয়ক্ষতি, ও আগুনের সূত্রপাতের বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি। 

তবে দিগ্বিদিক ছোটাছুটি করতে গিয়ে অনেক রোহিঙ্গা শিশু হারিয়ে গেছে বলে স্বজনেরা জানিয়েছেন। এসব স্বজনদের কান্নায় হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়েছে কাস্টমস এলাকায়। 

বালুখালী ৯ নাম্বার ক্যাম্পের বাসিন্দা আব্দু শুক্কুর জানায়, দুপুর ২টার দিকে ক্যাম্প- ৮-ই, ডব্লিউতে ছনের ছাউনিযুক্ত ঘরে আগুনের সূত্রপাত হয়। সেখান থেকে মুহূর্তের মধ্যে ক্যাম্প ৯ চলে আসে পরবর্তীতে ক্যাম্প ১০, ১১ সহ মোট ৪টি ক্যাম্পের অধিকাংশ রোহিঙ্গা বসতি পুড়ে ছাই হয়ে যায়৷ 

বালুখালী ৮ নাম্বার ক্যাম্প থেকে পালিয়ে পানবাজার এলাকায় আশ্রয় নেওয়া সফিকা বেগম কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, সেখানে তাড়াহুড়ো করে ঘর থেকে বেরিয়ে আসার সময় তার ৭ বছরে শিশু হারিয়ে যায়।

এ ধরনের নুরুল আলম নামের আরেক রোহিঙ্গা জানায়, তার ৬ বছরের মেয়ে কোথায় হারিয়ে গেছে খুঁজে পাচ্ছেনা। এভাবে অসংখ্য পিতা-মাতা তাদের সন্তানদের খুঁজতে দেখা গেছে। সরকারি নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে এখনো সঠিক পরিসংখ্যান, তথ্য-উপাত্ত পাওয়া যায়নি। 

ঘটনাস্থলে জেলা প্রশাসক, শরণার্থী ত্রাণ এ প্রত্যাবাসন কমিশনার, উপজেলা প্রশাসনের লোকজন উপস্থিত আছেন।

মুক্তসংবাদ প্রতিদিন / কে. আলম
Share on Facebook
×